Twitter

Follow palashbiswaskl on Twitter

Tuesday, August 18, 2015

অগণতান্ত্রিক আইসিটি এ্যাক্ট বাতিল করুন : বাম মোর্চা,The LEFT Front is active in Bangladesh!


অগণতান্ত্রিক আইসিটি এ্যাক্ট বাতিল করুন : বাম মোর্চা,The LEFT Front  is active in Bangladesh!


একাত্তরের শহীদ পরিবারের সন্তান প্রবীর সিকদারের গ্রেফতার আইন ও ক্ষমতার নিকৃষ্ট প্রয়োগ মন্তব্য করেছেন গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, প্রবীর শিকদারকে নিরাপত্তা দেয়ার পরিবর্তে যা করা হচ্ছে তা নজিরবিহীন ও বলদর্পী ক্ষমতার বর্বর চর্চা। তারা অবিলম্বে প্রবীর শিকদারকে মুক্তি দিন, অগণতান্ত্রিক আইসিটি এ্যাক্ট বাতিলেরও দাবি জানান। আজ তোপখানা রোডস্থ মোর্চার এক সভায় এসব দাবি জানানো হয়। এতে একাত্তরের শহীদ পরিবারের সন্তান বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রবীর শিকদারের গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন এবং এই ঘটনাকে 'আইন ও ক্ষমতার নিকৃষ্ট প্রয়োগ' হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন নেতারা। তারা বলেন, আইসিটি এ্যাক্টের অপব্যবহারের যে আশঙ্কা এতদিন ধরে করা হয়েছিল তা এখন সত্য বলে প্রমাণিত হচ্ছে। দেখা যাচ্ছে এই আইসিটি এ্যাক্ট অনুযায়ী সামাজিক গণমাধ্যমে নাগরিকদের মতপ্রকাশের ন্যূনতম অধিকারটুকু যেমন খর্ব হবে তেমনি জীবনাশংকার কথা প্রকাশ করাও অপরাধ হিসেবে গণ্য হবে। সরকারের এসব তৎপরতার সাথে গণতন্ত্র, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ও আইনের শাসনের কোন সম্পর্ক নেই; এইসব তৎপরতা চরম অসহিষ্ণু, অগণতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদী শাসনেরই বহিঃপ্রকাশ। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে প্রতিহিংসাজনীত আক্রোষের শিকার প্রবীর সিকদারকে মুক্তি প্রদান এবং নাগরিক অধিকারের পরিপন্থী আইসিটি এ্যাক্ট বাতিল করার দাবি জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন, জীবন আশংকার কথা জানিয়ে ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস দেবার জন্য যেভাবে এই পঙ্গৃ সাংবাদিককে গ্রেফতার ও তার সিদ্ধান্ত চাওয়া হয়েছে তা বলদর্পী ক্ষমতা ও আইসিটি এ্যাক্ট এর বর্বর চর্চা ছাড়া আর কিছু নয়। এদিকে নেতৃবৃন্দ প্রবীর সিকদারের গ্রেফতার প্রসঙ্গে আজ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যে হাস্যকর হিসাবে আখ্যায়িত করেছেন। প্রবীর সিকদারকে নিরাপত্তা দেবার পরিবর্তে ক্ষমতাবানদের নির্দেশনায় প্রবীর সিকদারকে নিয়ে যা করা হচ্ছে তা রীতিমত নজিরবিহীন। বিস্ময়কর হচ্ছে কোন আইনজীবীকেও তার পক্ষে দাঁড়াতে দেয়া হচ্ছে না। এর মধ্য দিয়ে নাগরিকদের আইনী সহায়তা পাবার সাংবিধানিক গণতান্ত্রিক অধিকারকেও পদদলিত করা হচ্ছে। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন তথ্য প্রযুক্তি আইন অনুযায়ী ভুক্তভোগীকেই সংক্ষুব্ধ হয়ে মামলা করতে হবে। অথচ কোন ভুক্তভোগী এখনও তার বিরুদ্ধে মামলা করেননি। তারপরও পুলিশের এই অতিউৎসাহের কোনো ব্যাখ্যা এই পর্যন্ত জানা যায়নি। গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার সমন্বয়ক, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক ও মোর্চার কেন্দ্রীয় নেতা সিদ্দিকুর রহমান, শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, মোশরেফা মিশু, মোশাররফ হোসেন নান্নু, জোনায়েদ সাকি, ইয়াসিন মিয়া ও হামিদুল হক প্রমুখ সভায় উপস্থিত ছিলেন। - See more at: http://www.dailynayadiganta.com/detail/news/47184#sthash.BPsS4nLe.dpuf
--
Pl see my blogs;


Feel free -- and I request you -- to forward this newsletter to your lists and friends!
Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...

Welcome

Website counter

Followers

Blog Archive