Twitter

Follow palashbiswaskl on Twitter

Sunday, December 8, 2013

मोदी को रोकेंगी दीदी চার রাজ্যের ফলাফলে দিদি আবাহন राहुल गांधी से नहीं,अब नरेंद्र मोदी का मुकाबला ममता बनर्जी से है

मोदी को रोकेंगी दीदी

চার রাজ্যের ফলাফলে দিদি আবাহন


राहुल गांधी से नहीं,अब नरेंद्र मोदी का मुकाबला ममता बनर्जी से है

एक्सकैलिबर स्टीवेंस विश्वास

নির্বাচনের ফলাফল লাইভ

  • 05:22 PMআগামী লোকসভা নির্বাচনে কী হতে চলেছে, তা এই বিধানসভা ভোটের ফলেই স্পষ্ট। বললেন বিজেপি সভাপতি রাজনাথ সিং।

  • 04:21 PMবিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলে বোঝা যাচ্ছে কংগ্রেস দলের গভীর ভাবে আত্মসমীক্ষা জরুরি। বললেন কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট সনিয়া গান্ধি।

লাইভ ব্লগ: কংগ্রেসের বিরুদ্ধেই জনমত

8 Dec 2013, 07:51চার রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল আজ। রাজস্থান, দিল্লি কি ধরে রাখতে পারবে কংগ্রেস? না সেখানেও থাবা বসাবে বিজেপি? না কি মধ্য প্রদেশ ও ছত্তিশগড় ফসকে যাবে বিজেপি-র হাত থেকে। সকাল আটটা থেকে শুরু হবে ভোট গণনা। চার রাজ্যের ১২৯টি ভোটগণনা কেন্দ্র ঘিরে কড়া নিরাপত্তা।

দিল্লিতে ত্রিশঙ্কু বিধানসভার সম্ভাবনা

8 Dec 2013, 11:55

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দিল্লিতে ত্রিশঙ্কু বিধানসভার সম্ভাবনাই প্রবল হল। প্রথম দিকে সরকার গঠনের দৌড়ে কংগ্রেসকে পিছনে ফেলে বিজেপি এগিয়ে থাকলেও, বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি এমন জায়গায় দাঁড়ায় যেখানে বিজেপি বা আপ কারও কাছেই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নেই।

রাজস্থানে রাজে রাজ, এমপি-তে শিব'রাজ'

8 Dec 2013, 11:29

কংগ্রেসের হাত থেকে রাজস্থানকে ছিনিয়ে নেওয়ার পথে বিজেপি। রাজস্থানে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেছে বিজেপি।




राहुल गांधी से नहीं,अब नरेंद्र मोदी का मुकाबला ममता बनर्जी से है।चार राज्यों के विधानसभा चुनावों से जो नतीजा निकल रहा है,वह मीडिया आकलनों के विपरीत है। सोशल मीडिया ने दिल्ली मेंऔर विश्वविद्यालयी छात्रों ने राजस्थान में सारे समीकरण बेमतलब बना दिये हैं।अगले लोकसभा चुनावों में इसका असर और ज्यादा होना है।कोई अचरच नहीं कि अगर अगला चुनाव राजस्थान की तर्ज पर बाकी देश में भी विश्वविद्यालय परिसरों से लड़ा जाये। इस भारी परिवर्तन की रोशनी में यह कम से कम तय हो गया है कि अकेले दम पर बाजपा के लिए बहुमत मुश्किल है।दिल्ली और छत्तीसगढ़ में बहुमत के लिए नाकों चना चबाने की नौबत देखते हुए उत्तरप्रदेश,बिहार,बंगाल,तमिलनाडु जैसे राज्यों में भाजपा की गत क्या होने वाली है,इसे समझ लिया जाना चाहिए।अब देशभर में कांग्रेस विरोधी जनज्वार के लगातार तेज होते रहने में भी कोई अंकुश लगाने की हालत में नहीं हैं राहुल गांधी।नरेंद्र मोदी के करिश्मे के जवाब में अब दीदी का करिश्मा देखने का वक्त आ गया है।


मुख्यमंत्री ममता बनर्जी एक बार फिर सोमवार को नयी दिल्ली जायेंगी, हालांकि उनके इस दौरे के संबंध में आधिकारिक रूप से कोई कार्यक्रम की घोषणा नहीं की गयी है। लेकिन मुख्यमंत्री का अचानक यह दिल्ली दौरा आगामी लोकसभा चुनाव के लिए काफी महत्वपूर्ण साबित हो सकता है।

फिलहाल जस्टिस गांगुली के खिलाफ दीदी की जिहाद पर सबकी नजर है।लेकिन सोमवार को दीदी के दिल्ली पहुंचने के बाद काफी सारे समीकरण बनने और बिगड़ने हैं।फिलहाल इंटर्न के साथ यौन शोषण आरोप झेल रहे सुप्रीम कोर्ट के पूर्व न्यायाधीश एके गांगुली के इस्तीफे को लेकर बढ़ते दबाव के बीच सबकी निगाहें दिल्ली पर टिकी हैं। बंगाल दौरे पर आए राष्ट्रपति प्रणब मुखर्जी रविवार को वापस दिल्ली पहुंचेंगे। कयास लगाए जा रहे हैं कि सोमवार के बाद वे पश्चिम बंगाल मानवाधिकार आयोग के अध्यक्ष पद से जस्टिस गांगुली के इस्तीफे पर कुछ फैसला ले सकते हैं। मुख्यमंत्री ममता बनर्जी के भी सोमवार को दिल्ली जाने की खबर से इन कयासों को और मजबूती मिली है।


यह समझना गलत है कि दीदी बेमतलब दिल्ली पहुंच रही हैं।इस बार दीदी की यह दिल्ली यात्रा सीदे तौर पर प्रधानमंत्रित्व पर उनकी दावेदारी की अग्निपरीक्षा है। रविवार को परिणाम की घोषणा के ठीक एक दिन बाद मुख्यमंत्री दिल्ली जा रही हैं, कयास लगाया जा रहा है कि अपने इस दौरे में वह केंद्रीय पार्टियों के नेताओं से मिल सकती हैं और आगामी लोकसभा चुनाव को लेकर रणनीति तैयार की जा सकती है।


गौरतलब है कि मुख्यमंत्री ने पहले ही अपने सभी सांसदों को केंद्र सरकार की जनविरोधी विधेयक का विरोध करने का निर्देश दे दिया है, चाहे वह सांप्रदायिक हिंसा संबंधी विधेयक हो या तेलंगाना मुद्दा। मुख्यमंत्री ने विधेयकों का संसद के अंदर व बाहर दोनों जगहों पर विरोध करने का निर्देश दिया है। सोमवार को वह वहां तृणमूल कांग्रेस के सांसदों के साथ भी मिलेंगी और उनके भविष्य के नीतियों के बारे में संबोधित करेंगी।


संघ परिवार और भाजपा को शायद यह अंदाजा ही नहीं है कि जिस ममता बनर्जी को अपने पाले में खींचने के लिए नरेंद्र मोदी से लेकर हर केशरिया नेता कोई कसर बाकी नहीं छोड़ रहे हैं,नरेंद्र मोदी को रोकने के लिए वे ही कांग्रेस और क्षत्रपों का सबसे बड़ा दांव बनने जा रही हैं।


इन चुनावों के नतीजे आने से पहले कोलकाता में टीपू सुल्तान मसजिद के इमाम ने साफ साफ कह दिया है कि अब ममता बनर्जी ही देश की प्रधानमंत्री बनेंगी। इस वक्त अल्पसंख्यकों की आस्था के मामले में मुजफ्फरनगर दंगा और उत्तर प्रदेश में अल्पसंख्यकों के उत्पीड़न की वजह से नेताजी यानी मुलायम सिंह यादव कोसों दूर हैं।


कामरेड ज्योति बसु के माकपाई पाखंड की वजह से प्रधानमंत्री न बन पाने की ऐतिहासिक भूल से सबक लेकर तय है कि ममता बनर्जी को पहली बंगाली प्रधानमंत्री बनाने के लिए बंगाल से भारी समर्थन मिलने वाला है।वामपंथी इस नये समीकरण से यानी ममता के प्रधानमंत्रित्व के बेहतरीन मौके और उन्हें मुसलिए वोटबैंक के एक मुश्त समर्थन के जोर पकड़ते समीकरण से और मुसीबत में फंस गये हैं। लोकसभा चुनावों में बंगाल में ममता लहर में वामपंथ के पूरे सफाये की आशंका भी है।इसके साथ ही कांग्रेस के बचे हुए गढ़ भी ध्वस्त होने हैं।पूर्वोत्तर व अन्यत्र दो चार सीटें और मिल जायें तो दीदी के पास कम से कम चालीस से पैंतालीस लोक सभा सदस्य होंगे,जो त्रिशंकु लकसभा में कांग्रेस के बिना शर्त समर्थन से सरकार बनाने के लिए पर्याप्त है।


इसके अलावा कोई दूसरा रामवाण नरेंद्र मोदी को रोकने के लिए किसी के पास है ही नहीं।कांग्रेस के लिए सौ के आस पास सीटें हासिल करना भी मुश्किल है और तीसरे मोर्चे की सरकार को समर्थन देने के सिवायकांग्रेस के पास कोई दूसरा विकल्प नहीं है। दूसरी तरफ, बंगाल से सफाया होने के बाद त्रिपुरा और केरल की कुछ सीटों के दम पर वामपंथी भी लोकसभा चुनाव के उपरांत तीसरे मोर्चे की सरकार में कोई भूमिका निभाने लायक नहीं बचेंगे। तमिलनाडु के क्षत्रप नई सरकार जिसकी बनेगी,उसीका साथ देंगे।


दिल्ली विधानसभा चुनाव में कांग्रेस को मिली करारी हार के बाद निवर्तमान मुख्यमंत्री शीला दीक्षित ने शहर के रुझान को समझने में पार्टी के नाकाम रहने के बारे में पूछे जाने पर कहा, (हम) बेवकूफ हैं ना। चुनाव में करारी हार के रुझान आने के साथ ही शीला ने मुख्यमंत्री पद से इस्तीफा दे दिया। उप राज्यपाल नजीब जंग को अपना इस्तीफा भेजने के बाद शीला ने संवाददाताओं के साथ संक्षिप्त बातचीत में कहा, हम अपनी हार स्वीकार करते हैं और हम इसका विश्लेषण करेंगे कि क्या गलत हुआ।


लेकिन हकीकत में कांग्रेस उतनी बेवकूफ भी नहीं है। कांग्रेस ने छत्तीसगढ़ में जो टक्कर भाजपा को दी है,उससे जाहिर है कि भाजपा को एकतरफा जीत नहीं मिलने वाली है और अगले लोकसभा में त्रिशंकु जनादेश की हालत में निर्णायक भूमिका कांग्रेस की ही रहेगी। उत्तर प्रदेश और बिहार के किसी के प्रधानमंत्रित्व से कांग्रेस के लिए आगे के चुनावों में भी बहुमत के लिए इन अति महत्वपूर्ण राज्यों में अपने जनाधार बनाये रखने की दृष्टि से ममता बनर्जी बेहतर विकल्प हैं। केंद्र सरकार के खिलाफ लगातार बोलने वाली ममता बनर्जी ने अभीतक गांधी नेहरु परिवार के खिलाफ एक शब्द भी नहीं बोला है। इसलिए कांग्रेस के साथ उनके रिश्ते कभी भी नाटकीय अंदाज में बदल सकते हैं।खासकर लोकसभा चुनावों के बाद।चुनाव से पहले दीदी बंगाल में किसी के लिए एक इंच जमीन नहीं छोड़ने वाली हैं।


गौर करें कि जम्मू-कश्मीर के मुख्यमंत्री उमर अब्दुल्ला ने इशारों-इशारों में ट्वीट कर राहुल गांधी की चुटकी ली। उमर ने कहा कि बड़ी जनसभाओं का मतलब भले ही वोट न हो, लेकिन अगर भीड़ न हो तो मुसीबत तय है। एक अन्य ट्वीट में उमर अब्दुल्ला ने गांधी परिवार पर निशाना साधते हुए कहा कि इस चुनाव से उन्हें ये सबक मिला है कि विभाजनकारी संदेश काम नहीं आता लेकिन ये भी सच है कि आप चुनाव गांधीवादी अभियान से भी नहीं लड़ सकते। गौरतलब है कि दिल्ली विधानसभा में चुनाव प्रचार की कमान संभालने वाले कांग्रेस उपाध्यक्ष राहुल गांधी की दक्षिण दिल्ली में हुई रैली में कम भीड़ जुटी थी।


कांग्रेस के साथ जो घटक हैं,उनके भी पाला बदल लेने की पूरी संभावना है।लेकिन अल्पसंख्यकों की आस्था की वजह से फिलहाल बढ़त दीदी को ही है।


गौरतलब है कि बाबारी विध्वंस की बरसी पर कोलकाता में  मुख्यमंत्री ममता बनर्जी ने तृणमूल युवा की सद्भावना सभा में कहा कि राजनीतिक फायदे के लिए दंगे कराये जाते हैं। यह कोई जाति विशेष के लोग नहीं करते। सद्भावना सभा के जरिये राजनीतिक विरोधियों पर हमला करते हुए कहा कि विरोधी चाहें जितनी भी साजिश कर लें यहां (बंगाल में) उनकी साजिश सफल नहीं होगी। वाममोरचा पर प्रहार करते हुए उनका कहना था कि 34 वर्ष के शासनकाल में उन्होंने कुछ नहीं किया।



मेयो रोड के करीब गांधी मूर्ति के सामने आयोजित इस सभा में लोगों की भारी भीड़ को संभालने के लिए पुलिस का पुख्ता प्रबंध किया गया था।


दीदी ने वामपंतियों को सलाह दी है कि चूंकि उन्होंने 34 साल तक कुछ नहीं किया, इसलिए उन्हें चुपचाप रहकर आराम करना चाहिए और सरकार को काम करने देना चाहिए।दीदी का आरोप है कि विरोधी सच्चाई को दबाकर लोगों के सामने उसका विकृत रूप पेश करते हैं।


दीदी का कहना था कि दंगा कराने की साजिश का वह कभी भी समर्थन नहीं कर सकती। ऐसे लोगों के साथ उनका कोई संबंध नहीं हो सकता।


बाबरी मस्जिद ढांचे को गिराये जाने की घटना की निंदा करते हुए मुख्यमंत्री ने कहा कि जब यह घटना हुई. तब वह महानगर की सड़कों पर किसी किस्म का दंगा रोकने के लिए उतर पड़ी थीं। तत्कालीन वाममोरचा सरकार से भी उन्होंने कहा था कि जरूरत पड़ने पर वह सरकार को किसी भी किस्म की सहायता करने को तैयार हैं। सभा में तृणमूल कांग्रेस के आला नेता मौजूद थे।



জল মাপতেই এ বার দিল্লি পাড়ি মমতার

জয়ন্ত ঘোষাল • নয়াদিল্লি

৭ ডিসেম্বর

শেষ বার দিল্লি এসেছিলেন যোজনা কমিশনের সঙ্গে বৈঠক করতে। সে বারই কমিশনের দফতরের বাইরে তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখিয়েছিল এসএফআই। যা নিয়ে রাজনৈতিক জলঘোলা হয়েছিল বিস্তর। তার পর আগামী সোমবার ফের দিল্লির মাটিতে পা রাখতে চলেছেন তিনি। তার মানে কি রাজনীতির এক নতুন অধ্যায় শুরু হতে চলেছে?

"কোনও অধ্যায়-টধ্যায় নেই।" প্রশ্ন শুনেই সপাটে উড়িয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। "ব্যক্তিগত কিছু কাজ আছে। তা ছাড়া, এত দিন সংসদে ছিলাম। দিল্লি গেলে অনেকের সঙ্গে দেখা হয়।"

মুখ্যমন্ত্রী তাঁর সফরকে যতই লঘু করে দেখাতে চান না কেন, শাহি দিল্লি কিন্তু রাজনৈতিক তাৎপর্যের গন্ধ পাচ্ছে। বিশেষ করে পাঁচ রাজ্যে বিধানসভা ভোটের ফল প্রকাশের পরের দিনই মমতা দিল্লি আসার সিদ্ধান্ত নেওয়ায়।

ভোটের ফল আগামিকাল দুপুরের মধ্যেই স্পষ্ট হয়ে যাবে। কংগ্রেসের পক্ষে আশার খবর শোনায়নি প্রায় কোনও বুথ-ফেরত সমীক্ষাই। বস্তুত, দশ বছর দেশ শাসনের পরে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে যে একটা হাওয়া উঠেছে, সেটা আমদরবারে কান পাতলেই বোঝা যাচ্ছে। ফলে আগামী বছর লোকসভা নির্বাচনে অঙ্কটা কী হবে, তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে এখন থেকেই।

দিল্লিতে গণতন্ত্রের শক্তি মাপা হয় সাংসদের সংখ্যায়। কংগ্রেস এবং বিজেপি, দু'পক্ষেরই যদি সংখ্যায় টান ধরে তা হলে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে আঞ্চলিক দলগুলির ভূমিকা। আর সিপিএম এবং কংগ্রেস রাজ্যের দুই বিরোধী দলই যে হেতু মনে করছে এ বার তৃণমূলের আসন বৃদ্ধির সম্ভাবনা প্রবল, সে হেতু দিল্লিতে টালমাটাল পরিস্থিতিতে নির্ণায়ক শক্তি হয়ে উঠতে পারেন মমতা। সেই সম্ভাবনা থেকেই মমতার সফর ঘিরে তাৎপর্যের গন্ধ পাচ্ছেন অনেকে।

লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি যদি শক্তিশালী হয়ে ওঠে, তা হলে মমতা কি এনডিএ-তে ফিরে যেতে পারেন? হাওড়া লোকসভা উপনির্বাচনে প্রার্থী না-দিয়ে সেই জল্পনা উস্কে দিয়েছিলেন বিজেপি সভাপতি রাজনাথ সিংহ। কিন্তু বরুণ গাঁধী দলের তরফে পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্ব নেওয়ার পরে রাজ্য সভাপতি রাহুল সিন্হার সঙ্গে হাত মিলিয়ে তৃণমূলের বিরুদ্ধে কড়া মনোভাব নিয়েছেন।

এনডিএ-তে সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন তৃণমূল নেতৃত্বও। রাজ্যের তিরিশ শতাংশ সংখ্যালঘু ভোটের বেশির ভাগই এখন তৃণমূলের দিকে। নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠা বিজেপি-র সঙ্গে হাত মিলিয়ে সেই ভোট খোয়াতে চায় না তারা। ডেরেক ও'ব্রায়েনের মতো তৃণমূল সাংসদ তাই সাফ বলে দিচ্ছেন "এনডিএ? নৈব নৈব চ।" তৃণমূল নেতারা মনে করাচ্ছেন, নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণ সত্ত্বেও তাঁর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেননি মমতা। মোদী কলকাতায় এসে দেখা করতে চাওয়া সত্ত্বেও দেখা করেননি।

এর বিপরীতে খবর হল, আজ শনিবার দিল্লির জামা মসজিদের শাহি ইমাম সৈয়দ বুখারির ছেলের বিয়েতে আমন্ত্রিত ছিলেন মমতা। নিজে আসতে না-পারলেও মুকুল রায় এবং ফিরহাদ (ববি) হাকিমকে পাঠিয়েছেন মমতা। সঙ্গে উপহার সোনার গয়না। আগামী সপ্তাহে দিল্লি এসে মমতা যাতে নবদম্পতিকে আর্শীবাদ করে যান, সেই অনুরোধও জানিয়েছেন বুখারি।

বিজেপি যদি অচ্ছুৎ হয়, তা হলে তাঁর পুরনো কর্মসূচি ফেডেরাল ফ্রন্ট (ইদানীং যাকে তিনি অবিহিত করছেন ইউনাইটেড ইন্ডিয়া ফ্রন্ট বলে) গঠনের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করতেই কি মমতার এ বারের দিল্লি-যাত্রা? এই ফ্রন্ট গড়ার ব্যাপারে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে একটা সময় আলোচনা শুরু করছিলেন মমতা। কিন্তু নীতীশ এনডিএ ছাড়ার পরে কংগ্রেসের সঙ্গে গোপন বোঝাপড়া শুরু করায় তিনি এই প্রক্রিয়া থেকে খানিকটা দূরে সরে যান। এর পরে দিল্লিতে বামেদের আয়োজিত সমাবেশে যোগ দেন নীতীশ। ফলে মমতার সঙ্গে দূরত্ব আরও বাড়ে।

তবে অন্ধ্রপ্রদেশের জগন্মোহন রেড্ডি, যাঁর নির্বাচনী ভবিষ্যৎ ভাল বলে মনে করছেন কংগ্রেস নেতারাই, সম্প্রতি কলকাতায় এসে মমতার সঙ্গে দেখা করেছেন। তাঁর সঙ্গে ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়কের সাক্ষাতের বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন মমতাই। মমতার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবও। মুলায়ম যতই সিপিএমের সঙ্গে ওঠাবসা করুন না কেন! মুকুল রায়ের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন মায়াবতীর প্রতিনিধি সতীশ মিশ্র। ফলে স্তিমিত হলেও ফেডেরাল ফ্রন্ট গড়ার উদ্যোগ যে জলে গিয়েছে, এমন নয়। প্রশ্ন হল, পরিবর্তিত এই পরিস্থিতিতে কংগ্রেসের ভূমিকা কী হবে? মমতার সঙ্গে কি তাঁরা সংঘাতের পথে যাবে? সারদা-কাণ্ডের সিবিআই তদন্ত নিয়ে তৎপর হবে। তৃণমূলকে বিপাকে ফেলতে উস্কে দেবে কুণাল ঘোষকে? কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারাই বলছেন, আসন সংখ্যা যদি কমে, তা হলে দলের দাদাগিরি করার ক্ষমতাও কমে যায়। ফলে লোকসভায় আসন সংখ্যা কমার আশঙ্কা সামনে রেখে কংগ্রেসের পক্ষে কতটা আক্রমণাত্মক হওয়া সম্ভব, সেই প্রশ্ন থাকছেই। তা ছাড়া, তখন এক দিকে যেমন লোকসভা ভোটের পরে তৃণমূলের সমর্থন নেওয়ার সম্ভাবনার কথা মাথায় রাখতে হবে কংগ্রেস নেতাদের, তেমনই বিজেপি-কে ঠেকাতে প্রয়োজনে আঞ্চলিক দলগুলির জোট সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন দেওয়ার জন্যও তৈরি থাকতে হবে।

তৃণমূল অবশ্য কংগ্রেস বিরোধিতার হাওয়া তৈরি হয়েছে বুঝে তাদের সঙ্গে সমঝোতার ভাবনাকে আমল দিচ্ছে না। দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায় বলেন, "কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধে লোকসভায় লড়ার তাগিদ নেই। কারণ তৃণমূল একাই বিপুল ভোটে জিতবে। তা ছাড়া, কংগ্রেসের পক্ষ থেকেও এমন কোনও প্রস্তাব নেই। কাজেই বিবেচনার প্রশ্নও উঠছে না।"

তৃণমূলের মতে, জোট হলে তাঁদের যত না লাভ হবে, কংগ্রেসের লাভ তার চেয়ে বেশি। কারণ, পঞ্চায়েত থেকে পুরসভা রাজ্যের সব ভোটেই বামেদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে অবস্থা খারাপ কংগ্রেসের। তাই রাজ্যের প্রতি কেন্দ্রের কংগ্রেস সরকারের বঞ্চনার অভিযোগ, বাম-কংগ্রেস আঁতাঁত নিয়ে প্রচার করে এক অস্ত্রে দুই শত্রু মারতে চাইছেন মমতা। এ বারের দিল্লি সফরে সনিয়া গাঁধী, রাজনাথ সিংহের সঙ্গে যেমন জোট নিয়ে কথা বলবেন না মমতা, তেমনই ফেডেরাল ফ্রন্ট নিয়ে কথা বলবেন না মুলায়ম-মায়াবতী-জয়ললিতা-করুণানিধির সংসদীয় দলের নেতাদের সঙ্গে। তা হলে এই সফরের তাৎপর্য কোথায়!

রাজধানীর রাজনীতিকরা মনে করছেন, লোকসভা ভোটের মুখে জাতীয় রাজনীতির জল মাপাটাই মূল লক্ষ্য মমতার। বুঝে নেওয়া আঞ্চলিক দলের নেতারা কে কোন অবস্থানে আছেন। কংগ্রেসের অবস্থা কতটা খারাপ। মোদীর পক্ষে হাওয়াই বা কতটা। বস্তুত শুধু মমতা নন, সব নেতাই এখন এই কাজে ব্যস্ত। সব দলের মাথারাই স্বীকার করছেন, এটা মুক্ত জনসংযোগের সময়। সকলেই সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। আর তার থেকেই তৈরি হবে ভবিষ্যতের জোট-চিত্র। দিল্লি প্রতীক্ষায়।

http://www.anandabazar.com/8desh1.html



পরশু দিল্লিতে মমতা, ডাক মঞ্চ থেকেও

নিজস্ব সংবাদদাতা • নয়াদিল্লি ও কলকাতা

পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফল বেরোচ্ছে আগামিকাল, রবিবার। আর তার পরের দিন, সোমবারেই দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দিল্লিতে তাঁর কোনও সরকারি কর্মসূচি নেই। তা হলে? তৃণমূল নেতৃত্বের অনেকেই বলছেন, সময়টা খুব গুরুত্বপূর্ণ। তত ক্ষণে পাঁচ রাজ্যে ফলের সূত্র ধরে মানুষের মনের আঁচও মিলে যাবে খানিকটা। তাঁদের ধারণা, বেহাল অবস্থাই হবে কংগ্রেসের। অন্য দিকে নরেন্দ্র মোদীর হাওয়ায় বিজেপি যতটা ভাল ফল আশা করছে, তা-ও হবে না। ছত্তীসগঢ়ে যেমন বিজেপি বিশেষ সুবিধা করতে পারবে না, তেমনই দিল্লিতে কংগ্রেস পর্যুদস্ত হলেও পদ্ম ফোটা নিয়ে সংশয় রয়েছে। বরং সেখানে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম-আদমি পার্টির ক্ষমতা দখলের সম্ভাবনা রয়েছে। এই অবস্থায় তৃতীয় শক্তির উত্থানের সম্ভাবনা দেখছেন তৃণমূল নেতৃত্ব, যে ফ্রন্টকে মমতা বর্ণনা করছেন ইউনাইটেড ইন্ডিয়া ফ্রন্ট হিসেবে। এই পরিস্থিতিতে তাই দিল্লিতে জনসংযোগ আরও বাড়াতে সফর মমতার। বিভিন্ন দলের নেতাদের সঙ্গে গল্প আড্ডায় যেমন তিনি বুঝে নিতে চাইবেন তাঁদের মনোভাব, তেমনই ইউনাইটেড ইন্ডিয়া ফ্রন্টের জন্য প্রাথমিক ভিতও গড়ে রাখতে চাইছেন এর মধ্যে। দলীয় সূত্রের খবর, সংসদের সেন্ট্রাল হলেও যাবেন মমতা। সেখানে বেশ কিছু সময় তাঁর থাকার কথা।

তাঁদের পাখির চোখ যে এখন দলকে দিল্লির রাজনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নিয়ে যাওয়া, সেটা এ দিন তৃণমূল যুবার ডাকে সংহতি দিবসের মঞ্চ থেকেও স্পষ্ট করে দিয়েছেন দলীয় নেতৃত্ব। ময়দানে গাঁধী মূর্তির পাদদেশে এই সভা থেকে দিল্লিতে 'মা-মাটি মানুষের সরকার' প্রতিষ্ঠার ডাক দেন তৃণমূল যুবার সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভা ভোটের কথা মাথায় রেখেই অভিষেক তাঁর বক্তৃতায় স্পষ্ট বলেন, "মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে এ বারের লোকসভা ভোটে তৃণমূল একলাই লড়বে।" অভিষেক যখন এই বক্তৃতা করছেন, তখন অবশ্য মমতা সভায় আসেননি। কিন্তু মঞ্চে সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত বক্সীর মতো তৃণমূল নেতারা ছিলেন।

*

তৃণমূল যুবার সভায় সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়

এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুক্রবার। ছবি: সুদীপ আচার্য।

অভিষেকের বক্তব্যের সূত্রে কলকাতার দু'টি বড় মসজিদের ইমাম থেকে শুরু করে বিভিন্ন সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিদের অনেকেই মমতাকে প্রধানমন্ত্রী করার আবেদন জানান। তাঁদের বক্তব্য, বাংলায় মমতা সুশাসন এনেছেন। দেশ বাঁচাতেও তাঁর মতো নেত্রী দরকার। জানুয়ারিতে ব্রিগেডের সভার আগে এ দিনও সমাবেশে ভিড় দেখে অভিষেকরা লোকসভা ভোটের প্রচারের মহড়া দিলেন।

মমতা দিল্লিতে সরকার গড়ার বিষয়ে কোনও কথা বলেননি। বরং তাঁর আধ ঘণ্টার বক্তৃতায় বাবরি ধ্বংসের নিন্দা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বিজেপি-র নাম না করলেও বাবরি ধ্বংসের সমালোচনা করেন মমতা। তিনি বলেন, "বাবরি ধ্বংসের আমরা নিন্দা করেছি। করছি। করব।" লোকসভা ভোটের আগে বাবরি ধবংসের ব্যাপারে মমতার প্রতিবাদ কার্যত বিজেপির বিরুদ্ধে সমালোচনার সামিল। এমনকী, ধর্মকে সামনে রেখে রাজনীতি করারও নিন্দা করেন তিনি।

দলের অনেক নেতাই এখন বলছেন, এ দিন সংহতি সভা থেকে একাধিক বার্তা দিতে চেয়েছে তৃণমূল। প্রথমত, বাবরি ধ্বংসের বার্ষিকীর দিনে সংহতি দিবসের আয়োজন করে সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী লড়াইয়ে সিপিএমের জমি কাড়তে চেয়েছেন মমতা। দ্বিতীয়ত, বাবরি ধ্বংসের নিন্দা করে বিজেপি বিশেষ করে নরেন্দ্র মোদীর থেকে দূরত্ব বজায়ের বার্তাও দিয়েছেন। তৃতীয়ত, জাতীয় স্তরে সম্ভাব্য তৃতীয় ফ্রন্ট থেকে প্রকাশ কারাটদের সরানোর যুদ্ধটাও জোরদার করতে চান তিনি। তাঁর দিল্লি যাত্রার অন্যতম কারণও সেটা। সিপিএমকে লক্ষ্য করে তিনি বলেন, "৩৪ বছর সুযোগ পেয়েছেন। এখন চুপ থাকুন। কাজ করতে দিন।" এখনও যাঁরা কংগ্রেসে, 'সোনার বাংলা' গড়তে সভা থেকেই তাঁদের তৃণমূলে আসার আহ্বান জানান যুবা-প্রধান অভিষেক, ঘটনাচক্রে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর ভ্রাতুষ্পুত্র।

http://www.anandabazar.com/archive/1131207/7desh1.html


লাইভ খবর

04 Dec, 2013 , 02.28PM IST

চার রাজ্যের ফলাফল

05:22 PMআগামী লোকসভা নির্বাচনে কী হতে চলেছে, তা এই বিধানসভা ভোটের ফলেই স্পষ্ট। বললেন বিজেপি সভাপতি রাজনাথ সিং।

04:21 PMবিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলে বোঝা যাচ্ছে কংগ্রেস দলের গভীর ভাবে আত্মসমীক্ষা জরুরি। বললেন কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট সনিয়া গান্ধি।

04:03 PM"দিল্লিতে আমরা বিরোধী আসনে বসতে প্রস্তুত" - মনীষ সিসোদিয়া

"দিল্লিতে আমরা বিরোধী আসনে বসতে প্রস্তুত" - মনীষ সিসোদিয়া

04:01 PMদিল্লিতে ২২ হাজার ভোটে শিলা দিক্ষীতকে হারালেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল

03:56 PMকে কোথায় এগিয়ে-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস - ৫, বিজেপি - ১২, আপ - ৮, অন্যান্য - ১। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস - ৪৬, বিজেপি -১০০, বিএসপি - ০ অন্যান্য - ৮। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস - ৭, বিজেপি - ৩৯, বিএসপি - ০ অন্যান্য - ১৫। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস - ২৭, বিজেপি - ৩৫, বিএসপি - ০, অন্যান্য - ০ । কে কোথায় জয়ী-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস - ৪, বিজেপি - ২১, আপ - ১৮, অন্যান্য - ১। মধ্যপ্রদেশ: কংগ্রেস - ১৭, বিজেপি - ৫৯। রাজস্থান: কংগ্রেস - ১৭, বিজেপি - ১১৮, অন্যান্য - ৩। ছত্তিশগড়: কংগ্রেস - ১৬, বিজেপি - ১২।

03:54 PMদিল্লির ফলাফল স্পষ্ট হতে উত্‍ফুল্ল কেজরিওয়াল

03:28 PMকে কোথায় জয়ী-- দিল্লি: কংগ্রেস- ৪, বিজেপি- ১৭, আপ- ১৬, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ: কংগ্রেস- ১৭, বিজেপি- ৫৯। রাজস্থান: কংগ্রেস- ১৭, বিজেপি- ১১৮, অন্যান্য- ৩। ছত্তিশগড়: কংগ্রেস- ১৫, বিজেপি- ১১।

03:28 PMকে কোথায় এগিয়ে-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৪, বিজেপি- ১৭, আপ- ১০, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৪৬, বিজেপি-১০০, অন্যান্য- ৮। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৯, অন্যান্য- ১৫। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ২৮, বিজেপি- ৩৬, অন্যান্য- ।

03:19 PMকে কোথায় জয়ী-- দিল্লি: কংগ্রেস- ৪, বিজেপি- ১৭, আপ- ১৩, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ: কংগ্রেস- ৮, বিজেপি-২৫। রাজস্থান: কংগ্রেস- ১৫, বিজেপি- ১০৫, অন্যান্য- ২। ছত্তিশগড়: কংগ্রেস- ৮, বিজেপি- ১০।

03:18 PMকে কোথায় এগিয়ে-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৪, বিজেপি- ১৭, আপ- ১৪, অন্যান্য- ০। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৫৪, বিজেপি-১৩১, অন্যান্য- ১২।রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ১১, বিজেপি- ৪৯, অন্যান্য- ১৭। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৩৩, বিজেপি- ৩৯, অন্যান্য- ১।

03:16 PMআপ-কে অভিনন্দন জানালেন যোগগুরু রামদেব।

03:14 PMদিল্লি পৌঁছলেন নরেন্দ্র মোদী। সাড়ে তিনটে নাগাদ সংসদীয় বোর্ডের বৈঠক।

03:13 PM'আমি কেজরিওয়ালকে অভিনন্দন জানাতে চাই', বললেন হর্ষবর্ধন।

03:13 PMদিল্লির কৃষ্ণনগর থেকে জয়ী বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হর্ষবর্ধন।

03:12 PMনয়াদিল্লিতে জয়ী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। শীলা দীক্ষিত পরাজিত।

03:09 PMআপ-এর দপ্তরের বাইরে এই পোস্টারে কেজরিওয়ালই 'আসল নায়ক'।

02:07 PMকে কোথায় জয়ী-- দিল্লি: কংগ্রেস- ৩, বিজেপি- ১১, আপ- ৮, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ: কংগ্রেস- ৮, বিজেপি-২৫। রাজস্থান: কংগ্রেস- ১০, বিজেপি- ৫৮, অন্যান্য- ২। ছত্তিশগড়: কংগ্রেস- ১, বিজেপি- ১।

02:07 PMকে কোথায় এগিয়ে-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৫, বিজেপি- ২১, আপ- ২১, অন্যান্য- ০। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৫৪, বিজেপি-১৩১, অন্যান্য- ১২। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২২, বিজেপি- ৮৫, অন্যান্য- ২২। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪০, বিজেপি- ৪৭, অন্যান্য- ১।

02:04 PMদিল্লির গ্রেটার কৈলাস আসনে আপ-এর সৌরভ ভরদ্বাজ জয়ী। মুস্তফাবাদ সিট থেকে জয়ী বিজেপি-র জগদীশ প্রধান।

02:03 PMমধ্যপ্রদেশে জয়ের হ্যাটট্রিকে শিবরাজ সিংকে অভিনন্দন জানালেন বিজেপির অনন্ত কুমার।

02:03 PM'মধ্যপ্রদেশের জনতার জয়', বললেন শিবরাজ সিং চৌহান।

02:03 PMআপ-কে অভিনন্দন জানালেন অনুপম খের, অনুষ্কা শর্মা।

02:02 PMমধ্যপ্রদেশের ফলাফলে হতাশ জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। বললেন, দলকে আত্মবিশ্লেষণ করতে হবে।

02:02 PMদিল্লির বাদলীতে জয়ী কংগ্রেসের দেবেন্দ্র যাদব। পটপড়গঞ্জ আসনে জয়ী আপ-এর মণীশ সিসৌদিয়া।

01:53 PMকে কোথায় জয়ী-- দিল্লি: কংগ্রেস- ২, বিজেপি- ৭, আপ- ৮, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ: কংগ্রেস- ৮, বিজেপি-২৫। রাজস্থান: কংগ্রেস- ১০, বিজেপি- ৫৮, অন্যান্য- ২। ছত্তিশগড়: কংগ্রেস- ১, বিজেপি- ১।

01:50 PMকে কোথায় এগিয়ে-- দিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৬, বিজেপি- ২৫, আপ- ২১, অন্যান্য- ০। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৫৪, বিজেপি-১৩১, অন্যান্য- ১২। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২২, বিজেপি- ৮৫, অন্যান্য- ২২। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪০, বিজেপি- ৪৬, অন্যান্য- ২।

01:46 PMদিল্লির উত্তম নগরে জয়ী বিজেপি-র পবন শর্মা।

01:46 PM১১০০০ ভোটে এগিয়ে কেজরিওয়াল।

01:46 PMদিল্লির রোহিণী আসনে আপ-এ প্রার্থী রাজেশ গর্গ জয়ী।

01:46 PMদিল্লির উদ্দেশে রওনা নরেন্দ্র মোদী। সাড়ে তিনটে নাগাদ সংসদীয় বোর্ডের বৈঠকে যোগ দেবেন।

01:46 PMরাজীব শুক্লা বলেন, নিজের তরফে পুরো চেষ্টা চালিয়েছেন রাহুল গান্ধী। স্থানীয় ইস্যুর কারণে আমরা হেরেছি। ২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে আমরা জয়ী হব

01:28 PMছত্তিশগড়ে কংগ্রেস-বিজেপি-র মধ্যে 'কাঁটে কী টক্কর'। বিজেপি- ৪৫, কংগ্রেস- ৪২ এবং অন্যান্য-২।

01:28 PMগান্ধী নগর থেকে কংগ্রেসের অরবিন্দ সিং লাভলি জয়ী। কংগ্রেসের একমাত্র মন্ত্রী যিনি এখনও পর্যন্ত জয়লাভ করতে পেরেছেন।

01:28 PMরাজস্থানের ঝলরাপাটন থেকে জয়ী বিজেপির মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া।

01:28 PMমধ্য প্রদেশের চুরই থেকে জয়ী বিজেপির পণ্ডিত রমেশ দুবে।

01:24 PMসাংবাদিকজের মুখোমুখি শীলা দীক্ষিত। প্রশ্ন করা হয়, জনতার মুড আপনারা বুঝতে পারেননি কেন? তাঁর উত্তর, 'বোকা তাই'।

01:04 PM'দিল্লিবাসী এটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আমরা তার সম্মান করছি। ১৫ বছর কংগ্রেসের সঙ্গে ছিল দিল্লি।' -- শীলা দীক্ষিত

01:00 PMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৩, আপ- ২২, অন্যান্য- ১। চারটি আসনে বিজেপি এবং তিনটিতে আপ জয়ী। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬৮, বিজেপি-১৪৫, অন্যান্য- ১১। একটি আসনে কংগ্রেস এবং পাঁচটি আসনে বিজেপি জয়ী। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ৩২, বিজেপি- ১৩৩, অন্যান্য- ২৩। একটি আসনে কংগ্রেস এবং ১০টি আসনে বিজেপি জয়ী। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪৩, বিজেপি- ৪২, বিএসপি- ৩। একটি করে আসনে জয়ী কংগ্রেস এবং বিজেপি।

12:47 PMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩০, আপ- ২৪, অন্যান্য- ২। চারটি করে আসনে বিজেপি এবং আপ জয়ী। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬৮, বিজেপি-১৪৫, অন্যান্য- ১১। একটি আসনে কংগ্রেস এবং পাঁচটি আসনে বিজেপি জয়ী। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ৩২, বিজেপি- ১৩৩, অন্যান্য- ২৩। একটি আসনে কংগ্রেস এবং ১০টি আসনে বিজেপি জয়ী। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪৫, বিজেপি- ৪১, বিএসপি- ২। একটি করে আসনে জয়ী কংগ্রেস এবং বিজেপি।

12:42 PMরাজস্থানে জয়ের উল্লাস কর্মী-সমর্থকদের।

12:39 PMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৫, আপ- ২৪, অন্যান্য- ৩। তিনটি করে আসনে বিজেপি এবং আপ জয়ী। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬৮, বিজেপি-১৪৯, অন্যান্য- ১১। একটি করে আসনে কংগ্রেস এবং বিজেপি জয়ী। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ৩২, বিজেপি- ১৪৩, অন্যান্য- ২২। দুটি আসনে বিজেপি জয়ী। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪৯, বিজেপি- ৩৯, বিএসপি- ২।

12:35 PMদিল্লির শকুরবস্তী সিটে জয়ী আপ-এর প্রার্থী সত্যেন্দ্র জৈন। সঙ্গম বিহার সিটেও জয়ী আপ প্রার্থী। শাজিয়া ইল্মী পিছিয়ে।

12:30 PMদেখুন NOTA, অর্থাত্‍‌ কোনও প্রার্থীকে ভোট নয়-এর রাজ্যভিত্তিক হার।

12:27 PMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৫, আপ- ২৪, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬৫, বিজেপি-১৫০, অন্যান্য- ১৩। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ৩৬, বিজেপি- ১৩৯, অন্যান্য- ২২। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪৯, বিজেপি- ৩৯, বিএসপি- ২।

12:17 PMকংগ্রেসের পরাজয় স্পষ্ট হতেই টুইটারে পোস্ট করা হয়েছে এই ছবি...

12:10 PM১৫০০০ ভোটে পিছিয়ে শীলা দীক্ষিত।

12:03 PMপদত্যাগ করলেন শীলা দীক্ষিত।

11:47 AMআট হাজার ভোটে এগিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

11:35 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৫, আপ- ২৪, অন্যান্য- ৩।মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৮, বিজেপি-১৩৮, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৭, বিজেপি- ১৪০, অন্যান্য- ২২। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪০, বিজেপি- ৪৬, অন্যান্য- ৩।

11:34 AMদিল্লি-- ৬৭০০ ভোটে পিছিয়ে শীলা দীক্ষিত।

11:20 AMদেওলি থেকে জয়ী আপ-এর প্রার্থী প্রকাশ। সপ্তম রাউন্ডের গণনায় ৪০টি ভোটে পিছিয়ে শাজিয়া ইল্মী।

11:18 AMআপ-এর ফলে খুশি আন্না হাজারে। তবে আপ যেন কারও সমর্থনে সরকার গঠন না করে।

11:16 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৭, বিজেপি- ৩৪, আপ- ২৬, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৮, বিজেপি-১৩৮, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৭, বিজেপি- ১৪০, অন্যান্য- ২২। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪০, বিজেপি- ৪৬, অন্যান্য- ৩।

11:14 AMবিজেপি-র জয়ের পিছনে মোদী ফ্যাক্টার, এমনই মত বসুন্ধরা রাজের।

11:14 AMদিল্লিতে আজাদ ময়দানে আপ সমর্থকদের ভিড়।

11:12 AMদিল্লিতে ষষ্ঠ রাউন্ডের গণনায় আরকে পুরম আসনে ১১ হাজার ভোটে এগিয়ে শাজিয়া ইল্মী।

11:11 AM'পরাজয়ের ঝড় উঠলে কেউ কিছু করতে পারে না। পরাজয়ের কোনও কারণ নেই। আমরা ভালো কাজ করেছি, সুশাসন দিয়েছি। এটা একটা আন্ডারকারেন্ট, যার কোনও উপচার নেই। জনতা এর ভিত্তিতেই ভোট দিয়েছে।' -- অশোক গেহলোত।

11:09 AMমধ্যপ্রদেশের অনুপপুর থেকে বিজেপি-র রামলাল রোতাল জয়ী।

11:07 AM'মধ্যপ্রদেশে মোদী ফ্যাক্টার কাজ করেনি। সমস্ত পোস্টারে শিবরাজ সিং চৌহানেরই ছবি ছিল। দিল্লিতেও মোদীর জাদু চলেনি', মন্তব্য রাজীব শুক্লার।

11:06 AM'অরবিন্দ সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করেনি। তাঁকে কোনও না-কোনও দলের সাহায্য নিতে হবে। সে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করলে নিজে আইন তৈরি করত। সে আমাকে রাজ্যে লোকায়ুক্ত আনার কথা বলেছিল। কিন্তু খিচুড়ি সরকার ভালো ভাবে চলে না। সে কী ভাবে লোকায়ুক্ত আনবে', দিল্লি বিধানসভা নিবার্চনের ফলাফলের পর এমনই মন্তব্য আন্না হাজারের।

11:00 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৯, বিজেপি- ৩৩, আপ- ২৫, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৪, বিজেপি-১৪২, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৬, বিজেপি- ১৪০, অন্যান্য- ১৯।ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৩৫, বিজেপি- ৪৯, অন্যান্য- ৩।

10:59 AM'আজ যা হল তার জন্য সাধারণ মানুষকে অসংখ্য ধন্যবাদ। এটি সাধারণ মানুষ এবং দলের কর্মীদের জয়', বললেন বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া।

10:58 AMমধ্যপ্রদেশের রাঘোগড়ে ২,৫৮৭ ভোটে এগিয়ে দিগ্বিজয় সিংয়ের ছেলে জয়বর্ধন সিং।

10:56 AMছত্তিশগড়ে সরকার গড়ার পথে বিজেপি।

10:55 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ১২, বিজেপি- ৩১, আপ- ২৪, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৪, বিজেপি-১৪২, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৬, বিজেপি- ১৪০, অন্যান্য- ১৯। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৩৫, বিজেপি- ৪৯, অন্যান্য- ৩।

10:50 AMনয়াদিল্লি আসনে ৪৫১০ ভোটে পিছিয়ে শীলা দীক্ষিত, এগিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

10:48 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ১২, বিজেপি- ৩১, আপ- ২৪, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৪, বিজেপি-১৪২, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৬, বিজেপি- ১৪০, অন্যান্য- ১৯।ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪১, বিজেপি- ৪১, অন্যান্য- ৩।

10:47 AMদিল্লিতে আপ-এর উল্লাস।

10:39 AMদিল্লিতে লক্ষ্মীনগর থেকে এগিয়ে একে ওয়ালিয়া। এতক্ষণ পিছিয়ে ছিলেন তিনি।

10:38 AMছত্তিশগড়ে বিজেপি এবং কংগ্রেসের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। দুই দলই ৪১টি করে সিটে এগিয়ে। তিনটি আসনে এগিয়ে অন্যান্যরা।

10:33 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ১৪, বিজেপি- ৩০, আপ- ২৫, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৪, বিজেপি-১৪২, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৮, বিজেপি- ১৩১, অন্যান্য- ১৯। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৩৯, বিজেপি- ৪৩, অন্যান্য- ৩।

10:30 AMদিল্লিতে আপ-এর শঙ্কনাদ। উল্লাসের প্রস্তুতি।

10:28 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ১৩, বিজেপি- ৩১, আপ- ২৫, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৩, বিজেপি-১৩৯, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৮, বিজেপি- ১৩১, অন্যান্য- ১৯। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৩৯, বিজেপি- ৪৩, অন্যান্য- ৩।

10:24 AMদিল্লিতে এগিয়ে বিজেপি-র হর্ষবর্ধন, আপ-এর অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং শাজিয়া ইল্মী। শীলা দীক্ষিত পিছিয়ে।

10:18 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৯, বিজেপি- ৩২, আপ- ২৫, অন্যান্য- ১। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৭৩, বিজেপি-১৩৯, অন্যান্য- ১১। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৮, বিজেপি- ১৩১, অন্যান্য- ১৯। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪২, বিজেপি- ৩৭, অন্যান্য- ৩।

10:17 AMআপ-এর ময়ঙ্ক গান্ধী জানালেন, কংগ্রেসের সমর্থনে সরকার গঠিত হবে না।

10:16 AMদিল্লিতে ত্রিশঙ্কুর সম্ভাবনা।

10:16 AMপটপড়গঞ্জ সিটে এগিয়ে আপ-এর মণীশ সিসৌদিয়া। বিজেপি-র নকুল ভারদ্বাজের তুলনায় ৫৭৪৬ ভোটে এগিয়ে তিনি।

10:14 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৯, বিজেপি- ৩৩, আপ- ২৪, অন্যান্য- ২। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬৮, বিজেপি-১৩৭, অন্যান্য- ১০। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৫, বিজেপি- ১২৯, অন্যান্য- ১৯। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪২, বিজেপি- ৩৭, অন্যান্য- ৩।

09:53 AMদিল্লি (৭০): কংগ্রেস- ৯, বিজেপি- ৩২, আপ- ২৪, অন্যান্য- ২। মধ্যপ্রদেশ (২৩০): কংগ্রেস- ৬২, বিজেপি-১৩৩, অন্যান্য- ৯। রাজস্থান (২০০): কংগ্রেস- ২৮, বিজেপি- ১২০, অন্যান্য- ১৭। ছত্তিশগড় (৯০): কংগ্রেস- ৪১, বিজেপি- ৩৬, অন্যান্য- ৩।

09:51 AM'রাজনীতিতে আপ-কে স্বাগত। অরবিন্দ কেজরিওয়াল নিজের কথা প্রমাণ করেছেন। ভারত পরিবর্তনে জন্য উত্‍‌সুক', বললেন প্রীতিশ নন্দী

09:49 AMনয়াদিল্লি সিটে এবার পিছিয়ে শীলা দীক্ষিত। ২ হাজার ভোটে এগিয়ে অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

09:48 AMদিল্লি (৬৫/৭০): কংগ্রেস- ১০, বিজেপি- ২৮, আপ- ২২, অন্যান্য- ৩। মধ্যপ্রদেশ (২০৩/২৩০): কংগ্রেস- ৫৭, বিজেপি-১৩৩, অন্যান্য- ৮। ছত্তিশগড় (৮০/৯০): কংগ্রেস- ৩৬, বিজেপি- ৪১, অন্যান্য- ৩। রাজস্থান (১৬২/২০০): কংগ্রেস- ৩১, বিজেপি- ১১৫, অন্যান্য- ১৬।

09:38 AMছত্তিশগড়ে মাওহানায় মৃত কংগ্রেস নেতা মহেন্দ্র কর্মার স্ত্রী দান্তেওয়াড়া আসনে এগিয়ে।

09:36 AMরাজস্থানের সরদারপুরা থেকে অশোক গেহলোত, ঝলারপাটন থেকে বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া আগে।

09:35 AMআপ-এর দপ্তরের বাইরে কর্মী-সমর্থকদের উত্‍‌সাহ।

09:30 AMদিল্লিতে ৯টি আসনে কংগ্রেস, ২৭টিতে বিজেপি, ২০টিতে আপ এবং ৩টি আসনে এগিয়ে অন্যান্যরা।

09:29 AMরাজস্থানে ২৬টি আসনে কংগ্রেস, ৮৯টিতে বিজেপি এবং ১৩টিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:29 AMছত্তিশগড়ে ৩৪টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। ৩৬টিতে বিজেপি এবং চারটিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:28 AMমধ্যপ্রদেশে ৫৪টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস, ১২২টি আসনে বিজেপি এবং ৬টি আসনে এগিয়ে অন্যান্যরা।

09:26 AMদিল্লিতে ৮টিতে এগিয়ে কংগ্রেস, ২৩টিতে বিজেপি, ১৮টিতে আপ এবং ৩টি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:25 AMরাজস্থানে ১৯টি আসনে কংগ্রেস, ৮৪টিতে বিজেপি এবং ১১টিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:21 AMদিল্লির পটপড়গঞ্জ থেকে আপ-এর মণীশ সিসৌদিয়া এগিয়ে।

09:20 AMমধ্যপ্রদেশে ৪৯টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস, ১১৭টিতে বিজেপি এবং ৬টিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:19 AMছত্তিশগড়ে কংগ্রেস-বিজেপির মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। ৩৪টি করে আসনে এগিয়ে দুই দলই। চারটিতে এগিয়ে অন্যান্যরা।

09:17 AMরাজস্থানে ১৮টি আসনে কংগ্রেস, ৭১টিতে বিজেপি এবং ১২টিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:16 AMদিল্লিতে ৮টি আসনে কংগ্রেস, ২০টি আসনে বিজেপি, ১৭টিতে আপ এবং তিনটিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:15 AMমধ্যপ্রদেশে ৩৯টি আসনে কংগ্রেস, ১০৬টিতে বিজেপি এবং তিনটিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:15 AMছত্তিশগড়ে ৩৪টি আসনে কংগ্রেস, ২৯টিতে বিজেপি এবং ২টিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:09 AM''আমরা রাজস্থান, দিল্লি এবং মধ্যপ্রদেশে এগিয়ে। প্রথম দিকে আমরা ছত্তিশগড়ে একটু পিছিয়ে ছিলাম। কিন্তু সেখানেও সরকার গঠনের সম্ভাবনা রয়েছে।'' -- শাহনওয়াজ হুসেন, বিজেপি

''আমরা রাজস্থান, দিল্লি এবং মধ্যপ্রদেশে এগিয়ে। প্রথম দিকে আমরা ছত্তিশগড়ে একটু পিছিয়ে ছিলাম। কিন্তু সেখানেও সরকার গঠনের সম্ভাবনা রয়েছে।'' -- শাহনওয়াজ হুসেন, বিজেপি

09:07 AMনয়াদিল্লি সিট থেকে শীলা দীক্ষিত এগিয়ে, পিছিয়ে রয়েছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

09:05 AMমধ্যপ্রদেশে ৩৬টি আসনে কংগ্রেস, ৮৫টি আসনে বিজেপি এবং ৪টি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:04 AMদিল্লিতে পাঁচটি আসনে কংগ্রেস, ১২টি আসনে বিজেপি, ৬টিতে আপ এবং তিনটি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:04 AMরাজস্থানে ৮টি আসনে কংগ্রেস, ৪২টি আসনে বিজেপি এবং পাঁচটি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:03 AMছত্তিশগড়ে ২৩টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। ১৬টি আসনে বিজেপি এবং একটি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

09:02 AMদিল্লিতে কংগ্রেস এবং আপ-এর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। পাঁচটি করে আসনে এগিয়ে কংগ্রেস এবং আপ। ১০টি আসনে এগিয়ে বিজেপি।

09:01 AMমধ্যপ্রদেশে ৩২টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস। ৭৮টি আসনে এগিয়ে বিজেপি। ২টি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

08:58 AMউদয়পুরের সুন্দরী মন্দিরে গেলেন বসুন্ধরা রাজে সিন্ধিয়া।

08:56 AMরাজস্থানে পাঁচটি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস, ২৪টি আসনে বিজেপি এবং একটি আসনে অন্যান্যরা এগিয়ে।

08:54 AMমধ্যপ্রদেশে ১৯টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস এবং ৫৪টি আসনে এগিয়ে বিজেপি। একটি আসনে এখনও অন্যান্যরা এগিয়ে।

08:52 AMশুধু নয়াদিল্লি সিটে এগিয়ে শীলা দীক্ষিত।

08:52 AMদিল্লিতে তিনটি আসনে কংগ্রেস, সাতটি আসনে বিজেপি এবং পাঁচটি আসনে এগিয়ে আপ। তিনটি আসনে এগিয়ে অন্যান্য দল।

08:51 AMমধ্যপ্রদেশে ১৭টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস, ৪৭টিতে বিজেপি এবং একটিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

08:49 AMরাজস্থানে কংগ্রেস পাঁচ, বিজেপি ১৭ এবং অন্যান্যরা একটি আসনে এগিয়ে।

08:48 AMছত্তিশগড়ে আটটি আসনে এগিয়ে বিজেপি, ১০টিতে কংগ্রেস এবং একটিতে অন্যান্যরা এগিয়ে।

08:41 AMরাজস্থানে দু'টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস এবং চারটি আসনে এগিয়ে বিজেপি।

08:41 AMদিল্লিতে পাঁচটি আসনে এগিয়ে বিজেপি, চারটিতে আপ এবং একটি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস।

08:39 AMমধ্যপ্রদেশে ১৫টি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস এবং ২৬টি আসনে এগিয়ে বিজেপি। একটি আসনে এগিয়ে অন্যান্যরা

08:37 AMদিল্লিতে নরেলায় বিজেপি আগে।

08:35 AMদিল্লিতে এখনও খাতা খুলতে পারেনি কংগ্রেস। দু'টি আসনে এগিয়ে বিজেপি এবং একটিতে আপ।

08:33 AMমধ্যপ্রদেশে কংগ্রেস ১২, বিজেপি ১৮ এবং অন্যান্যরা একটি আসনে এগিয়ে।

08:32 AMছত্তিশগড়ে কংগ্রেস তিন এবং বিজেপি পাঁচটি আসনে এগিয়ে।

08:30 AMশীলা দীক্ষিতের জয়ের জন্য দিল্লিতে যজ্ঞ।

08:22 AMছত্তিশগড়ে রাজনন্দগাঁও আসনে ৬ হাজার ভোটে এগিয়ে রমন সিং।

08:15 AMদিল্লির বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী ড: হর্ষবর্ধন বলেন, আজ তাঁর জন্য বিশেষ কোনও দিন নয়। রোজ যেমন দিন শুরু করেন, সে ভাবেই আজও করেছেন।

08:12 AMছত্তিশগড়ে একটি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস, একটিতে অন্যান্যরা। মধ্যপ্রদেশের দু'টি সিটে কংগ্রেস এবং দু'টিতে বিজেপি এগিয়ে।

08:10 AMভোটগণনা শুরু। পোস্টার ব্যালট দিয়ে গণনা শুরু।

07:48 AMসকাল আটটা থেকে শুরু হবে ভোট গণনা। গণনাকেন্দ্র ঘিরে কড়া নিরাপত্তা।

http://eisamay.indiatimes.com/electionresultlive2013/liveblog/26848235.cms


No comments:

Post a Comment

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...

Welcome

Website counter

Followers

Blog Archive