Twitter

Follow palashbiswaskl on Twitter

Tuesday, September 16, 2014

The results of the by-elections are a verdict against the communal card that was unleashed by the BJP-RSS-VHP-BD and the other crazies running all over with their mad rants. The Indian masses have told Modi to go back to the reasons why they voted for hi


The results of the by-elections are a verdict against the communal card that was unleashed by the BJP-RSS-VHP-BD and the other crazies running all over with their mad rants. The Indian masses have told Modi to go back to the reasons why they voted for him - development - not communal hate politics.

By-poll results. SET BACK FOR BJP as the COMMUNAL CARD BACKFIRES IN UP, RAJASTHAN, TELENGANA. GAINS A SEAT IN BENGAL BUT EVEN LOSES SEATS IN GUJARAT. CONGRESS, SAMAJWADI PARTY GAIN, TRS, TRINAMOOL ALL GAIN. MODI NEEDS TO GO BACK TO THE DEVELOPMENT CARD & STOP ITS POLITICS OF COMMUNAL POLARIZATION. THE PEOPLE OF INDIA, 31% OF THEM VOTED MODI FOR A REASON, THIS WAS NOT IT WITH ADVAINATH SAKSHI TOGADIA ALL RUNNING WILD. IF THE MODI-BJP DO NOT DRAW THE RIGHT CONCLUSIONS, THE SLIDE WILL CONTINUE. MODI'S SILENCE TOO HAS LED TO THIS SITUATION.


বাংলার বাইপোল- তৃণমূল (১) বিজেপি (১) - জোর লড়াইয়ের পর বসিরহাট দক্ষিণে জিতে বিধানসভায় খাতা খুলল বিজেপি, চৌরঙ্গি ধরে রাখল তৃণমূল-LIVE Result

Last Updated: Tuesday, September 16, 2014 - 14:40

ওয়েব ডেস্ক: চৌরঙ্গি ও বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে উপনির্বাচনের ভোটগণনা শেষ হল। উপনির্বাচনের ফলাফল বলছে তৃণমূল ১, বিজেপি ১। বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে নাটকীয় জয় ছিনিয়ে এনে, রাজ্য বিধানসভায় খাতা খুলল বিজেপি। অন্যদিকে, চৌরঙ্গি আসন ধরে রাখল তৃণমূল কংগ্রেস। বামেদের করুণ অবস্থা বজায় থাকল।

চৌরঙ্গি আসন ধরে রাখল তৃণমূল কংগ্রেস। জয়ী হলেন তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৪ হাজার ৩৪৪ ভোটে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির রীতেশ তিওয়ারিকে হারালেন নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়।

বসিরহাট কেন্দ্রে গণনা শেষ। হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে ১৭৪২ ভোটে জয়ী বিজেপি প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্য। আগের সব রাউন্ডের এগিয়ে থাকলেও শেষের রাউন্ডে হারতে হল দীপেন্দু বিশ্বাসকে।

চৌরঙ্গিতে ১২ তম রাউন্ডের শেষে তৃণমূল প্রার্থী এগিয়ে গেলেন ৩৫৯৪ ভোটে।

বসিরহাটে নবম রাউন্ডের গণনা শেষ ৭১৮৬ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাস (৫৩,৫৭৩টি ভোট)। বাকি আর একটা রাউন্ডের গণনা বাকি আছে। দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি (৪৬,৩৮৬), তৃতীয় স্থানে সিপিআইএম (২০৬০৪)

চৌরঙ্গিতে দশম রাউন্ডের গণনা পর দ্বিতীয় স্থানে উঠে এল বিজেপি। তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় ২,৪০৯ ভোটে বিজেপি প্রার্থীর চেয়ে এগিয়ে। তিনে নেমে গেল কংগ্রেস। চতুর্থ স্থানেই থাকল বামেরা।

দশম রাউন্ডের শেষে চৌরঙ্গিতে প্রাপ্ত ভোট-তৃণমূল-১৯,৫০১টি ভোট,বিজেপি-১৬,৬২৬টি ভোট, কংগ্রেস-১৬,৫২৬টি ভোট,সিপিআইএম-৬,২২৫টি ভোট

 

চৌরঙ্গিতে নবম রাউন্ডের ভোট গণনা শেষ। ১১৭৭ ভোটে এগিয়ে গেলেন তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারি। তৃতীয় স্থানে বিজেপি প্রার্থী,চতুর্থ স্থানে সিপিআইএম প্রার্থী।

 

ফের হিসাব উল্টে গেল চৌরঙ্গিতে। অষ্টম রাউন্ড শেষে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে রয়েছেন ৩৫৭ ভোটে। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারি। তৃতীয় স্থানে বিজেপি প্রার্থী,চতুর্থ স্থানে সিপিআইএম প্রার্থী।

 

বসিরহাট দক্ষিণে ষষ্ঠ রাউন্ড শেষে লিড কিছুটা কমল তৃণমূল প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাসের। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির শমিক ভট্টাচার্যের থেকে ১১,২৩২ ভোটে। এখন এই কেন্দ্রে চলছে শহরাঞ্চলের ভোটগণনা। বিশেষজ্ঞমহলের মতে, তাই তৃণমূলের লিড কমছে।

চৌরঙ্গি কেন্দ্রে সপ্তম রাউন্ডের শেষে ৩৪৪ ভোটে এগিয়ে কংগ্রেস প্রার্থী সন্তোষ পাঠক। দ্বিতীয় স্থানে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয় স্থানে বিজেপি প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারি। চতুর্থ স্থানে সিপিআইএম প্রার্থী ফৈয়াজ আহমেদ খান।

বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে পঞ্চম রাউন্ডের গণনা শেষে ১৭,০২৪ ভোটে এগিয়ে আছেন তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাস। দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি প্রার্থী শমিক ভট্টাচার্য। তৃতীয় স্থানে কংগ্রেস প্রার্থী অসিত মজুমদার। চতুর্থ স্থানে সিপিআইএম প্রার্থী মৃণাল চক্রবর্তী।

 বসিরহাট দক্ষিণে চতুর্থ রাউন্ড শেষে কে কতগুলি ভোট পেলেন-- তৃণমূল-২১,৯২৩টি ভোট, বিজেপি-১৪,৪৬২, কংগ্রেস-৯,৭৬২টি ভোট, সিপিআইএম-৭,৭৪২টি ভোট।

চৌরঙ্গি কেন্দ্রে পঞ্চম রাউন্ডের গণনা শেষ। ২,৫৮৮ ভোটে এগিয়ে কংগ্রেস প্রার্থী সন্তোষ পাঠক। দ্বিতীয় স্থানে তৃণমূল প্রার্থী। তৃতীয় স্থানে বিজেপি, চতুর্থ স্থানে বামফ্রন্ট প্রার্থী।

সকাল ১০টা- বসিরহাট দক্ষিণে চতুর্থ রাউন্ড শেষে ৭,৬০০ ভোটে এগিয়ে গেলেন তৃণমূল প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাস। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন বিজেপি প্রার্থী শমিক ভট্টাচার্য।

সকাল ৯.৩০টা- তৃতীয় রাউন্ডের গণনা শেষে ২,৯৩৪ ভোটে এগিয়ে গেলেন কংগ্রেস প্রার্থী সন্তোষ পাঠক। দ্বিতীয় স্থানে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়।

সকাল ৯.১৫টা- তৃতীয় রাউন্ডের গণনা শেষে ৫,২৯০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাস। দ্বিতীয় স্থানে বিজেপি প্রার্থী শমিক ভট্টাচার্য।

সকাল ৯টা- দ্বিতীয় রাউন্ড গণনার শেষে চৌরঙ্গিতে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে ৭০৭ ভোটে। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস প্রার্থী সন্তোষ পাঠক। তৃতীয় স্থানে আছেন বিজেপি প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারি। চতুর্থ স্থানে বাম প্রার্থী ফৈয়জ আহমেদ খান।

প্রথম রাউন্ড শেষে চৌরঙ্গিতে কে কত ভোটে পেল- তৃণমূল- ২০৪৯ ভোট, কংগ্রেস-১০৯৩ ভোট, বিজেপি-৭৯৬ভোট, বামফ্রন্ট-৭৮৫ ভোট

সকাল ৮.৪১- প্রথম রাউন্ডের গণনা শেষে বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী দীপেন্দু বিশ্বাস। প্রথম রাউন্ডের গণনা শেষে দীপেন্দু বিশ্বাস এগিয়ে ২,২৫৩ ভোটে। লোকসভা নির্বাচনে এই বিধানসভা কেন্দ্রে বড় লিড পেয়েছিল বিজেপি।

সকাল ৮.৪০- প্রথম রাউন্ডের গণনা শেষে চৌরঙ্গি কেন্দ্রে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী এগিয়ে ১,১০০ ভোটে এগিয়ে। লোকসভা ভোটে এই বিধানসভা কেন্দ্রে এগিয়ে ছিল কংগ্রেস।

 

২০০১১ বিধানসভা নির্বাচনে বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে বামফ্রন্ট প্রার্থী নারায়ণ মুখার্জি জয়ী হয়েছিলেন। নারায়ণ মুখার্জি তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল প্রার্থী নারায়ণ গোস্বামী হারান ১২,৪০০ ভোটের ব্যবধানে।

২০১১ বিধানসভা নির্বাচনে চৌরঙ্গি কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী হিসাবে জয়ী হন শিখা মিত্র। কংগ্রেস সমর্থিত তৃণমূল প্রার্থী শিখা মিত্র তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাম সমর্থিত আরজেডি প্রার্থী বিমল সিংকে হারান ৫৭,৭৩৯ ভোটের ব্যবধানে। তৃতীয় স্থানে থাকা  বিজেপি পেয়েছিল ৪,৭৯৯টি ভোট

সকাল ৮টা- ভোট গণনা শুরু হল।

 

চতুর্মুখী লড়াই হলেও, দুটি কেন্দ্রেই তৃণমূল ও বিজেপি প্রার্থীর মধ্যেই মূল লড়াইটি হবে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। চৌরঙ্গি কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপি দাঁড় করিয়েছে রীতেশ তিওয়ারিকে। বসিরহাট দক্ষিণে বিজেপি প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্য। তৃণমূল দাঁড় করিয়েছে ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসকে।

বসিরহাট দক্ষিণে জয়ী বিজেপি ও চৌরঙ্গীতে তৃণমূল

submit to reddit

 

রাজ্যে উপনির্বাচনের ফলাফল ১-১। বসিরহাট দক্ষিণ কেন্দ্রে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে বিজেপি প্রার্থী শমীক ভট্টাচার্য জিতেছেন। অন্য দিকে, চৌরঙ্গিতে জিতেছেন তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের দীপেন্দু বিশ্বাসকে ১৭৪২ ভোটে হারিয়ে বসিরহাটে জয়ী হয়েছেন শমীক। চৌরঙ্গিতে বিজেপি প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারিকে ১৪৩৪৪টি ভোটে হারিয়ে জয়ী হয়েছেন নয়না।

দশম রাউন্ড থেকেই চৌরঙ্গিতে বিজেপি বনাম তৃণমূল লড়াই জমে উঠেছিল। সপ্তম রাউন্ড পর্যন্ত হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে অষ্টম রাউন্ডে এসে কংগ্রেসের সন্তোষ পাঠককে পিছনে ফেলে দিয়েছিলেন চৌরঙ্গি কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। দশম রাউন্ডে কংগ্রেস প্রার্থীর থেকে প্রায় ৫০০ ভোটে এগিয়ে বিজেপি-র রীতেশ তিওয়ারি লড়াইয়ে দ্বিতীয় স্থানে ঢুকে পড়েন। ষোলো তথা শেষ রাউন্ড শেষে এই কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায় পেয়েছেন মোট ৩৮৩২৮টি ভোট। বিজেপি প্রার্থী রীতেশ তিওয়ারি পেয়েছেন ২৩৯৮৪টি ভোট। কংগ্রেসের সন্তোষ পাঠকের প্রাপ্ত ভোট ২৩৩১৭ এবং সিপিএম প্রার্থী ফৈয়াজ আহমেদ খান পেয়েছেন ৮৮৯০টি ভোট।

অন্যদিকে বসিরহাট দক্ষিণে তৃণমূলকে কড়া টক্কর দেয় বিজেপি। ষষ্ঠ রাউন্ড থেকে নিয়মিত ব্যবধান কমিয়ে আনেন বিজেপি প্রার্থী। প্রথম কয়েকটি রাউন্ডে গ্রামীন এলাকায় তৃণমূল প্রার্থী এগিয়ে ছিলেন। গত লোকসভা নির্বাচনে এইসব এলাকায় বাম প্রার্থী প্রথম স্থানে থাকলেও এবারের ভোটে তাদের টেক্কা দিয়েছে তৃণমূল ও বিজেপি। তবে পুর এলাকার ভোট গণণা শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শমীক ব্যবধান কমাতে থাকেন। শেষপর্যন্ত তিনিই শেষ হাসি হাসলেন।উল্লেখ্য, গত লোকসভা নির্বাচনে বসিরহাট আসনে প্রার্থী হয়েছিলেন শমীক। তিনি এই বিধানসভা আসনের ফলাফলের নিরিখে প্রায় ৩০ হাজার ভোটে এগিয়ে ছিলেন।


First Published: Tuesday, September 16, 2014 - 08:16
The results of the by-elections are a verdict against the communal card that was unleashed by the BJP-RSS-VHP-BD and the other crazies running all over with their mad rants. The Indian masses have told Modi to go back to the reasons why they voted for him - development - not communal hate politics.
LikeLike ·  · 

राष्‍ट्रवाद पेला गया! राष्‍ट्रवाद में डाइवर्सिटी खोजने वाले भी पेला गए! आज कोई गंभीर ज्ञान नहीं...।

UnlikeUnlike ·  · 
  • Gulshan Kumar इससे ज्यादा भी गंभीर कोई ज्ञान और हो सकता है क्या आज के लिए ?
    25 mins · Like · 1
  • मुकेश कुमार भाई,सौ दिनों में इस सरकार ने कटरा तक रेलवे पहुंचाया,विक्रांत और विक्रमादित्य देश को समर्पित किया गया.PSLVलांच किया गया.देश में शांति कायम रहा. न पाकिस्तान और चीनी सेना आए अगर वो आये तो भारत के विकास देखने आतें रहें.चीनी सेना तो भारत में एक पद एक पेंशन ...See More
    20 mins · Edited · Like
  • Abhishek Srivastava Pankaj Parvez लहरवा साइकिल की सर्विसिंग में काम आ गई, साइकिल चमक गई।
    16 mins · Like · 2
  • Pankaj Parvez इत्ती तेज हवा निकर रही है, देखौ कोउ बिजली ना बनाय ले
    10 mins · Edited · Like · 3
  • Palash Biswas lok mein bolyo to khub bolyo maharaj.Rang barsau pan kesria fiko bhayo ha maharaj
  • मोदी का जादू काफ़ूर हो गया है!!

    LikeLike ·  · 

See realtime coverage

Bypoll results LIVE: Samajwadi Party stumps BJP, wins 8 seats in Uttar Pradesh

Zee News - ‎18 minutes ago‎
2:10 pm: BJP candidate Ashutosh Tandon wins from Lucknow (East) constituency by defeating Samajwadi Party leader Juhi Singh. 1:55 pm: "We have won in many places and at some places, the results have been not up to our expectations... These by-polls ...
  • Mon, 15 Sep 2014 15:15:00 GMT

    Saradha scam: ED grills top East Bengal officials

    The ED, a specialised financial investigation agency under the union finance ministry, is looking into the money trail of the scam, which is said to have affected 12 lakh investors in West Bengal


    Saradha scam: ED grills top East Bengal officials (© Getty Images)

    For representative purpose only

    Kolkata: The Enforcement Directorate (ED) Monday quizzed three East Bengal club officials, including general secretary Kalyan Majumdar, in conneciton with the multi-crore rupee Saradha chit fund scam.

    Majumdar, along with club assistant general secretary Shanti Ranjan Dasgupta and accountant Tapan Das, arrived at the ED office located within the Central Government Office complex in the satellite township of Salt Lake.

    East Bengal had inked a sponsorship deal with the Saradha Group some years ago.

    The ED, a specialised financial investigation agency under the union finance ministry, is looking into the money trail of the scam, which is said to have affected 12 lakh investors in West Bengal.

    The Central Bureau of Investigation, which is probing the scam following a Supreme Court directive, last month arrested East Bengal official Debabrata Sarkar.

    Related Content

No comments:

Post a Comment

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...

Welcome

Website counter

Followers

Blog Archive