Twitter

Follow palashbiswaskl on Twitter

Friday, January 30, 2015

Just inhuman.Book Fair Durgotsav engaged WI FI Metro Kolkata and the unemployed young men and women on Hunger Strike in the SSC Office are not allowed to have water to drink!Thus,Lotus blooms in Bengal!

Just inhuman.Book Fair Durgotsav engaged WI FI Metro Kolkata and the unemployed young men and women on Hunger Strike in the SSC Office are not allowed to have water to drink!Thus,Lotus blooms in Bengal!
Palash Biswas


অনশনকারী দের একটু ফ্রেস জল পর্যন্ত দিতে দিচ্ছে না পুলিশ । আজ অনশন ৪ দিনে পড়ছে । অনশন যারা করেন তাদের দিনে অন্তত ৩-৪লিটার জল খেতে বলা হয় । কিন্তু SSC ভবনের ট্যাঙ্কের নোংরা জল খেতে বাধ্য করা হচ্ছে । অর্ধেক অনশনকারী বমি করছেন, পেট খারাপ হয়েছে ভয়ানক । তাদের ওষুধ দিতে দেওয়া হচ্ছে না ।

অনশন এই নিয়ে তৃতীয়বার । এনারা চাকরীর হক দাবীদার । সকলের কাছেই খুব পরিষ্কার, শাসকদলের নেতারা লক্ষ লক্ষ টাকায় এক একটা চাকরী বিক্রি করেছেন বলেই এনাদের প্যানেলে নাম থাকবার পরেও চাকরী হচ্ছে না ।

এই ভয়ানক কষ্টে তিন জন মারা গেছেন । ডিপ্রেশনে আগেও একজন আত্মহত্যা করেছেন, কাল রাতেও ওখানে ছিলাম অশ্রুদি'র নার্ভের অসুবিধা আছে । বারবার অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার পরেও কোন ব্যবস্থা করছে না পুলিশ । অশ্রুদি কে টেনে হিঁচড়ে হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে । অশ্রুদি একটা সুইসাইড নোট লিখেছিলেন, তার চাকরী না পাওয়া এবং জীবনের আসা টুকু ক্ষীণ হয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসন দায়ী থাকবে । সেই নোট পুলিশ ছিঁড়ে দিয়েছে । এবং অশ্রুদি'কে প্ররোচনা দেবার জন্য ফারুক এবং মোহন দা কে গ্রেপ্তার করেছে । একজন আন্দোলন কারী বাধা দিতে গেলে অনশনরত অবস্থায় মেরে আঙুল ফাটিয়ে দিয়েছে ।

এদের মধ্যে কেউ মারা গেলে কিন্তু দায়ী থাকবো আমরাই। কারন এতো দায়িত্বশীল কলকাতাবাসী আমরা সহায় সম্বলহীন হবু শিক্ষকদের পাশে দাঁড়াতে পারলাম না । আমরা বই মেলা নিয়ে হয়তো বিজি...

হতেই পারে, অনিতা দেওয়ানের সময়েও আমরা কলকাতা ফিল্ম উৎসব নিয়েই ব্যাস্ত ছিলাম । কলকাতা এক ব্যাস্ত থাকার ইতিহাস...

অনশনকারী দের একটু ফ্রেস জল পর্যন্ত দিতে দিচ্ছে না পুলিশ । আজ অনশন ৪ দিনে পড়ছে । অনশন যারা করেন তাদের দিনে অন্তত ৩-৪লিটার জল খেতে বলা হয় । কিন্তু SSC ভবনের ট্যাঙ্কের নোংরা জল খেতে বাধ্য করা হচ্ছে । অর্ধেক অনশনকারী বমি করছেন, পেট খারাপ হয়েছে ভয়ানক । তাদের ওষুধ দিতে দেওয়া হচ্ছে না ।     অনশন এই নিয়ে তৃতীয়বার । এনারা চাকরীর হক দাবীদার । সকলের কাছেই খুব পরিষ্কার, শাসকদলের নেতারা লক্ষ লক্ষ টাকায় এক একটা চাকরী বিক্রি করেছেন বলেই এনাদের প্যানেলে নাম থাকবার পরেও চাকরী হচ্ছে না ।     এই ভয়ানক কষ্টে তিন জন মারা গেছেন । ডিপ্রেশনে আগেও একজন আত্মহত্যা করেছেন, কাল রাতেও ওখানে ছিলাম অশ্রুদি'র নার্ভের অসুবিধা আছে । বারবার অজ্ঞান হয়ে যাওয়ার পরেও কোন ব্যবস্থা করছে না পুলিশ । অশ্রুদি কে টেনে হিঁচড়ে হসপিটালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে । অশ্রুদি একটা সুইসাইড নোট লিখেছিলেন, তার চাকরী না পাওয়া এবং জীবনের আসা টুকু ক্ষীণ হয়ে যাওয়ার জন্য প্রশাসন দায়ী থাকবে । সেই নোট পুলিশ ছিঁড়ে দিয়েছে । এবং অশ্রুদি'কে প্ররোচনা দেবার জন্য ফারুক এবং মোহন দা কে গ্রেপ্তার করেছে । একজন আন্দোলন কারী বাধা দিতে গেলে অনশনরত অবস্থায় মেরে আঙুল ফাটিয়ে দিয়েছে ।     এদের মধ্যে কেউ মারা গেলে কিন্তু দায়ী থাকবো আমরাই। কারন এতো দায়িত্বশীল কলকাতাবাসী আমরা সহায় সম্বলহীন হবু শিক্ষকদের পাশে দাঁড়াতে পারলাম না । আমরা বই মেলা নিয়ে হয়তো বিজি...    হতেই পারে, অনিতা দেওয়ানের সময়েও আমরা কলকাতা ফিল্ম উৎসব নিয়েই ব্যাস্ত ছিলাম । কলকাতা এক ব্যাস্ত থাকার ইতিহাস...

No comments:

Post a Comment

Related Posts Plugin for WordPress, Blogger...

Welcome

Website counter

Followers

Blog Archive